শনিবার, সেপ্টেম্বর ২৬, ২০২০ || ১১ আশ্বিন, ১৪২৭ || ৯ই সফর, ১৪৪২ হিজরি

মুসলমানদের আবারও সেই সোনালী দিন ফিরে আসবে : শহীদ আফ্রিদি


 মুসলমানদের আবারও সেই সোনালী দিন ফিরে আসবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন পাকিস্তানের কিংবদন্তি ক্রিকেটার শহীদ আফ্রিদি।

আফ্রিদি এক টুইট বার্তায় তুর্কি সিরিজ দিরিলিস আরতুগুল নিয়ে তার মুগ্ধতার কথা বলতে গিয়ে তিনি এ আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

তুরস্কের অন্যতম জনপ্রিয় সিরিজ দিরিলিস নিয়ে শনিবার আফ্রিদি তার ভেরিফায়েড টুইটার পেজে বলেন, “তুর্কি সিরিজ ‘দিরিলিস আরতুগুল’ দেখছি। আল্লাহর প্রতি বিশ্বাস ও ন্যায় বিচারের কারণে আরতুগুলের জীবনে বিজয় ও সফলতা আসে। হয়তোবা (মুসলমানদের) সেই সোনালী দিন আবারও আসবে।”

তুরস্কের টিভি সিরিজ সারা বিশ্বে ব্যাপক জনপ্রিয়তা পেয়েছে। বিশেষ করে মুসলিম বিশ্বে তুর্কি সিরিয়াল অপ্রতিদ্বন্দ্বী। সারা বিশ্বে দুই শতাধিক ভাষায় ডাবিং করে সম্প্রচারিত হচ্ছে এসব তুর্কি সিরিয়াল।
আরো পড়ুন…মাঠে ফেরার সুখবর দিলেন আশরাফুল
স্পোর্টস ডেস্ক: দীর্ঘ করোনা বিরতির পর প্রথম কাল থেকে দেশের ৪টি স্টেডিয়ামের অনুশীলন শুরু করতে যাচ্ছেন ক্রিকেটাররা। এর আগে অনেকেই বাড়িতে অনুশীলন করলেও মাঠে আনুষ্ঠানিকভাবে এটিই প্রথম অনুশীলন। তবে তার একদিন আগেই ব্যাট – বল হাতে নেমে পড়লেন আশরাফুল।

ক’রোনার সময়টাতে অন্য সব ক্রিকেটারের মতো ঘরেই ফিটনেস ধরে রাখার কাজটা করেছেন আশরাফুল। তবে মাঠের অনুশীলনটা করা হয়নি। তাইতো ক্রিকেটে ফিরতে মরিয়া আশরাফুল এবার নেমে পড়লেন মাঠের খোঁজে। নিজের বাসা বনশ্রীর পাশে আফতাবনগরে খেলার মাঠটিকে ক্রিকেট উপযোগি করে তুলেছেন ক’দিন আগেই। নিজের উদ্যোগেই করেছেন তিনি এই কাজটা।

ন্যাচারাল পিচ আগেই ছিল, নেটের জন্য সেই পিচের উপরের স্তরটা ব্যাটিংয়ের জন্য ঠিক করেছেন আশরাফুল। পিচকে রোলিংও করা হয়েছে ! সেখানেই মাঠে শনিবার ফিল্ডিং,ক্যাচিং প্র্যাকটিস করে লম্বা সময় নেটে ব্যাটিং প্র্যাকটিস করেছেন আশরাফুল। তার এই অনুশীলনে সহায়তা করেছেন একদল ক্ষুদে ক্রিকেটার।৪ মাস পর অনুশীলনে নেমে ৭ মিনিটের একটা ভিডিও পোস্ট করেছেন আশরাফুল।

এ ব্যাপারে এক অনলাইন গণমাধ্যমকে আশরাফুল বলেন, ‘বাসার সামনে আফতাব নগর খেলার মাঠে ফিল্ডিং,ব্যাটিং করেছি। এই মাঠে গড় চার-পাঁচ বছর ধরে আমি নিয়মিত অনুশীলন করি। ১২০ দিন পর অনুশীলনে নামলাম। গোড়ান ক্রিকেট একাডেমীর একদল ছেলে আমার অনুশীলনে সহায়তা করেছে। ১০ দিন ধরে মাঠটা ঠিক করেছি। পিচটকে ঠিক করেছি।একদিন আগে রোল ও করা হয়েছে।ইস্টার্ন হাউজিং লিমিটেডের সঙ্গে কথা বলে তাদেরকে পিচটা রোল করে দিতে অনুরোধ করেছিলাম। ওরা হেভি রোলার পাঠিয়ে পিচটা রোল করে দিয়েছে।’

দীর্ঘ ৪ মাস পর ব্যাটিংয়ে নেমে জড়তা অনুভব করেননি বলে জানিয়েছেন আশরাফুল, ‘এই চার মাস কিন্তু টুকটাক বাসার ছাদে ব্যাটিং করেছি। তাই আমার কাছে কোন কিছু নুতন মনে হয়নি। ঠিক-ঠাক মতো ব্যাট করতে পেরেছি। অভিজ্ঞ ক্রিকেটারদের ক্ষেত্রে দীর্ঘদিন পর অনুশীলন করা কঠিন হবে বলে মনে হয় না।’

শেয়ার করুনঃ